মানুষের অনিষ্ট থেকে বাচার দোআ জানতে চাই।

আসসালামু আলাইকুম, আমরা কোন আমল করলে মানুষের দারা কোন ক্ষতি থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবো ? যদিও এক আল্লাহ্‌র উপর ভরশা করলেই যথেষ্ট । তবুও  এমন কোন দোআর কথা আমায় দয়া করে জানাবেন কি? আমি খুব উপকৃত হবো।

2 thoughts on “মানুষের অনিষ্ট থেকে বাচার দোআ জানতে চাই।

  • January 12, 2014 at 4:11 pm
    Permalink

    ওয়া আলাই কুসসালামু ওয়ারাহ মাতুল্লাহ।
    আমি লিকতেছি সে প্রোভুর নামে যিনি সকল ক্ষমতা বানের উপর ক্ষমতা বান।
    ১।মানব জাতি এবং জ্বিন জাতি
    এ দুই জাতির মধ্যে কিছু দুস্ট লোক আছে যারা মানুষের উপর যাদু মন্ত্রের দ্বারা প্রভাব বিস্তার করে থাকে তা ভালো ও হতেপারে আবার খারাপ ও হোতেপারে।
    ২।যারা এ খারাপ প্রভাব থেকে মুক্ত থাকতেচান তাদের জন্য গুরুত্যপুর্ন কয়টি আমল।
    ১।প্রত্যেক ফরয নামাযের পর সুরা বাকারার ২৫৪ নং আয়াত থেকে ২৫৭ নং আয়াত পর্যন্ত একবার পাট করে হাতে ফুকদিয়ে পুরো শরিরে হাত ভুলিয়ে দিবেন।
    ২।সকাল সন্ধায় এ দুওয়াটা ৩বার পাঠকরবেন।
    (আমার কাছে আরবি লেখার ব্যবস্থা না থাকায় অপারগ হয়েই দুওয়াটি বাংলায় রিকতেছি বাংলায় ছহি উচ্চারন না পারলে কোন আলেমের কাছ থেকে আরবিটা সংগ্রহ করেনিবেন)
    (দোওয়া) বিসমিল্লা হিল্লাজি লা য়াদুর্রু মাআসমিহি শাই উং ফিল আরদি ওয়ালা ফিসসামা ওয়াহুওয়াস সামি উল আলিম।
    ৩।সকাল সন্ধায় চার কুল তিন তিন বার করে পাট করে হাতে ফুকদিয়ে গায়ে মুছে দিবেন ।(চারকুল)১।সুরা কাফিরুন ২।সুরা ইখলাছ ৩।সুরা ফালাক ৪।সুরা নাছ।
    (ওয়াল্লাহু আড়লাম)

  • January 20, 2014 at 11:48 am
    Permalink

    আমি যা লিখতে কলম ধরলাম আপনাকে দেখি উপরে “মাসুম বিল্লাহ” ভাই তা লিখে দিয়েছেন, তাই মাসুম ভাইকে ধন্যবাদ তবে আমি মাসুম ভাইয়ের পরামর্শটা আরেকটু পরিস্কার করতে চাই তার মধ্যে- প্রথমত মাসুম ভাই যা টাইপিং সমস্যার কারণে আরবিটা আপনাকে লিখে দিতে পারেনি তা আমি আরবিতে লিখে দিচ্ছি– قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَا مِنْ عَبْدٍ يَقُولُ فِي صَبَاحِ كُلِّ يَوْمٍ وَمَسَاءِ كُلِّ لَيْلَةٍ بِسْمِ اللَّهِ الَّذِي لَا يَضُرُّ مَعَ اسْمِهِ شَيْءٌ فِي الْأَرْضِ وَلَا فِي السَّمَاءِ وَهُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ ثَلَاثَ مَرَّاتٍ فَيَضُرَّهُ شَيْءٌ. رواه الترمذي (3388)
    রসূল স্বঃ বলেনঃ যে ব্যক্তি সকাল-সন্ধা এ’দু’আটি তিন বার পড়বে কোন কিছুই তার ক্ষতি সাধন করতে পারবে না। তবে একটা কথা আছে প্রথমত আপনি আপনার ঈমানকে পাক্কা করতে হবে আপনার ঈমান যত পাকা হতে তত বেশি এই দু’আ আপনার পক্ষে কাজ করবে।
    ২য় মাসুম বিল্লাহ ভাই চার কুল এর কথাও বলেছে এখানে আমল সংক্রান্ত ‘হাদীসে ইখলাছ তথা কুল হুওয়াল্লা-হ তিন বারের কথা এসেছে বাকি মু’আও ওয়াযাতাইন অর্থাৎ বড় কুল ছোট কুল ১বারের কথা এসেছে। নিম্নের দু’আটিও খুব উপকারি-
    حديث ابن عمر -رضي الله عنهما-:
    من طريق عبادة بن مسلم الفزاري حدثني جُبير بن أبي سليمان بن جُبير بن مُطْعِم قال: سمعت ابن عمر يقول: لم يكن رسول الله -صلى الله عليه وعلى آله وسلم- يَدَعُ هؤلاء الدعوات حين يُمسي وحين يُصبح:

    “اللهم إني أسألك العافية في الدنيا والآخرة, اللهم إني أسألك العفو والعافية في ديني ودُنْياي, وأهلي, ومالي, اللهم استر عوراتي -وفي رواية: عورتي- وآمِنْ روْعاتي, اللهم احفظني من بين يديَّ, ومِنْ خَلْفي, وعن يميني، وعن شمالي, ومن فوقي, وأعوذ بعظمتك أن أُغْتال من تحتي”.
    ভাই দুঃখি সময় সংকির্নতার কারণে বাংলায় উচ্চারণটা লিখে দিতে পারলাম না। ধন্যবাদ

Leave a Reply