ছিদ্দিকে আকবর ও ওমর ফারুকের যুদ্ধ

বুড়ি মা! আপনার কি কোন কাজের প্রয়োজন আছে? থাকলে আমাকে বলুন। আমি চেষ্টা করবো, আপনার প্রয়োজন পূর্ণ করে দেওয়ার। না বাবা, আমার আর কোন প্রয়োজন নেই। যা ছিল তা একটি লোক এসে পূরণ করে দিয়ে গেছে। চিন্তার সাগরে ডুবে গেলেন হযরত ওমর রা:। কে সেই ব্যক্তি, যে তার পূর্বেই বৃদ্ধার প্রয়োজন পূর্ণ করে দিয়ে যায়? এবার নিয়ে দুবার তিনি পরাজিত হলেন লোকটির কাছে। তিনি ভেবে চলেছেন। আগামীকাল থেকে দেখে নিবেন লোকটাকে। পরদিন হযরত ওমর রা: চলে গেলেন বৃদ্ধার দুয়ারে। কিন্তু একি!!! চারদিকে এত পরিষ্কার পরিচ্চন্ন লাগছে কেন? তবে কি!!!!!! খটকা লাগলো হযরত ওমর রা: মনে। সংশয় দূর করতে বৃদ্ধাকে বললেন, বুড়ি মা, আজ আপনার কি কি প্রয়োজন দিখা দিয়েছে আমাকে বলুন। আমি আপনার প্রয়োজন পূরণ করে দিচ্ছি। হযরত ওমর রা: কথা শুনে বৃদ্ধা বললেন, বাবা আমার তো আর কোন প্রয়োজন নেই যা ছিল তা পূর্বেই সেই লোকটি এসে পূরণ করে দিয়েছে। ওমর রা: কি আজও হেরে গেলেন। বৃদ্ধার কথা শুনে মনেমনে প্রতিজ্ঞা করলেন, লোকটি কে যে তাকে বারবার পরাজিত করে চলছে। দেখতেই হবে তাকে। পরদিন খুব তাড়াতাড়ি বৃদ্ধার কুঠিরে গিয়ে দেখলেন, একটি লোক বৃদ্ধ‍ার উঠান ঝাড়ৃ দিচ্ছে। লোকটি দেখে হযরত ওমর রা: মুচকি হাসলেন। তারপর বললেন, হে ছিদ্দিক আজ আমি পরাজিত হয়েও আনন্দিত। এ কারণে যে আমি যোগ্য লোকের কাছেই পরাজিত হয়েছি। সত্যিই আমার পক্ষে সম্ভব নয় আপনার উপর বিজয়ী হওয়া। ওমর রা: ফিরে এলেন বৃদ্ধ‍ার কুঠির থেকে। আজ তার মনে কোন ক্ষোভ নেই দুঃক্ষ নেই। অন্য ধরনের এক আনন্দ অনুভব করছেন। যোগ্য ব্যক্তির কাছেই যে পরাজিত হওয়ার মধ্যেও রয়েছে পরম আনন্দ।

 

আসুন আমরা সৎ কাজের প্রতিযোগীতায় নাম লেখাই।

Omur

ইসলামের শিক্ষার কঠোর অনুসরণ, দয়ার সাথে দৃঢ়তার মিশ্রণ, কঠোরতার সাথে সুবিচারের সমতাবিধান এবং মানুষের প্রতি দায়িত্বশীলতার অপর নামই ওমর মোহাম্মদ ফারুক!

One thought on “ছিদ্দিকে আকবর ও ওমর ফারুকের যুদ্ধ

Leave a Reply