শ্বশুর বাড়ির লোকদের সহিত আচার-ব্যবহার (৫ম খণ্ড)

বিসমিল্লাহির রহমানীর রহিম

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন সবাই? আশা করি ভালই আছেন? আমিও আপনাদের দোয়ায় অনেক ভাল আছি। তাহলে কাজের কথায় আসি।

প্রথম পর্ব যারা পড়েন নি, তারা এখান, দ্বিতীয় খণ্ড এখানে, ৩য় খণ্ড, ৪র্থ খণ্ড এখানে থেকে পড়তে পারেন।

৪র্থ পর্বের পরে।

চাকর-চাকরানীর সহিত ব্যবহারঃ বাড়িতে যদি কোন চাকরানী থাকে, তবে তাহার দ্বারা তাহার সাধ্যাতীত কাজ লউও না; কোন কাজ তাহার কষ্টসাধ্য হইলে ঐ কাজে নিজের সহায়তা করা কর্তব্য। তাহার সহিত কঠোর ব্যবহার ও কঠোর বাক্য প্রয়োগ করিও না। সে রোগাক্রান্ত হইলে কিংবা কোন কষ্টে পতিত হইলে তাহাকে সমবেদনা জ্ঞাপন করিও। চাকরানীদের সাথে তোমার মাতার ব্যবহার তুমি দেখিয়াছ। কোন চাকরানীর মাথায় একটু ব্যথা অনুভব হইলে কাজের ফরশাইশ তাহাকে না দিয়া তোমার মা নিজেই সেই কাজ করিয়াছেন অবশ্য এরূপও করা চই না যাহাতে চাকর চাকরানীরা একেবারে আরামপ্রিয় ও কামচোরা হইয়া যায়। চাকরানীদেরকে নিক্মর্মা করিয়া রাখা বাস্তবে ইহা তাহাদের সহিত শত্রুতা করা। কেননা, সে অন্যত্র যেখানেই যাইবে, সর্বদা গৃহকর্ত্রীর গাল-মন্দ শুনিবে। খাওয়া-দাওয়ার কোন উৎকৃষ্ট বস্তু তোহফা স্বরূপ কোথাও হইতে আসিলে, উহা হইতে চাকরানীদের কিছু কিছু দেওয়া উচিৎ। তোমার মাতার ব্যবহার তুমি নিজ চক্ষেই দেখিয়াছ, যে, জিনিস যত অল্পই হউক না কেন তবুও চাকরানীদের একটা অংশ রাখা হইত-মোতার মাতার এই আচরণ দেখিয়া মনে মনে ভারী আনন্দিত হইতাম যে, সৃষ্টিগত ভাবে তোমাদের মধ্যে অন্যকে প্রধান্য দেওয়ার গুণ বিদ্যমান আছে। আল্লাহ্ তা’আলা তোমাকে এই সৎ গুণে আরো উন্নতি দিন। নিজ স্বামী এবং বাড়ির অন্যান্য মেয়ে লোকদের সহিত এই ব্যবহার করিতে থাকিও।

তাহলে আজ এপর্যন্তই।

পরবর্তি খণ্ড নিয়ে খুব তারাতারিই আপনাদের মাঝে হাজির হবে ইনশাআল্লাহ্

ভাল লাগলে কমেন্টে জানাতে ভুলবে না…

ভুলে ভরা জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,যদি আমার লেখার মাঝে কোন ভুলত্রুটি থাকে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ সবাই ভাল থাকবেন।

মোঃ আবুল বাশার

আমি একজন ছাত্র,আমি লেখাপড়ার মাঝে মাঝে একটা ছোট্ট পত্রিকা অফিসে কম্পিউটার অপরেটর হিসাবে কাজ করে,নিজের হাত খরচ চালানোর চেষ্টা করি, আমি চাই ডিজিটাল বাংলাদেশ হলে এবং তাতে সেই সময়ের সাথে যেন আমিও কিছু শিখতে পারি। আপনারা সকলে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পরার চেষ্টা করুন এবং অন্যকেও ৫ওয়াক্ত নামাজ পরার পরামর্শ দিন। আমার পোষ্ট গুলো গুরে দেখার জন্য ধন্যবাদ, ভাল লাগেলে কমেন্ট করুন। মানুষ মাত্রই ভুল হতে পারে,ভুল ত্রুটি,হাসি,কান্না,দু:খ,সুখ,এসব নিয়েই মানুষের জীবন। ভুলে ভড়া জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,ভুল ত্রুটি ক্ষমার দৃর্ষ্টিতে দেখবেন। আবার আসবেন।

Leave a Reply