একটি জরুরী বিষয় (হক আদায়)

ogropothik_1331457932_1-man_serving_parents

বিসমিল্লাহির রহমানীর রহিম

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন সাবাই? আশা করি ভালই আছেন? আমিও আপনাদের দোয়ায় অনেক ভাল আছি। তাহলে কাজের কথায় আসি।

 

যদি কাহারও হক আদায় করার মধ্যে কিছু ত্রুটি থাকে, তবে দেখিতে হইবে যে, সে হক কি প্রকার। যদি পরিশোধ করার উপযুক্ত হক হয় যেমনঃ কাহারও নিকট হইতে কোন মাল ধার আনিয়া তাহা দেয় নাই বা কর্জ করিয়া আনিয়া তাহা সম্পূর্ণ পরিশোধ করে নাই বা বাকি সদাই আনিয়া দোকানদারের পয়সা দেয় নাই বা ঘুষ, সুদ খাইয়াছে বা চুরি ডাকাতি করিয়াছে বা আমানতে খেয়ানত করিয়াছে, যদি এই প্রকারের হক হয়, তবে পরিশোধ করিয়া দিবে অথবা মাফ চাহিয়া লইবে। আর যদি পরিশোধ করার উপযুক্ত হক না হয় যেমন কাহারও গীবত করিয়াছে বা কাহাকেও গালি দিয়াছে বা কাহাকেও অনর্থক মারিয়াছে, তবে শুদু মাফ চাহিয়া লইবে। আর যদি কোন কারণবশত হয়ত নিজের টাকা না থাকার দরুন বা হকদারে কোন ঠিকানা না পাওয়ার দরুন, হক দারের দেনা পরিশোধও করিতে পারে না এবং তাহাদের থেকে মাফও লইতে পারে না তবে জীবন ভরিয়া হামেশা তাহাদের জন্য আল্লাহ্র কাছে দো’আয়ে মাগফেরাত করিতে থাকিবে; হয়ত এইরূপ চির জীবন কান্নাকাটির ফলে আল্লাহ পাক তাহাদিগকে রাজি করিয়া তাহাদের থেকে মাফ লইয়া দিতে পারেন। কিন্তু যদি পরে আবার কোন সময় মাফ লওয়ার বা পরিশোধ করার সুযোগ হয় তবে অবহেলা করিলে চলিবে না, মাফ চাহিয়া লইবে অথবা পরিশোধ করিয়া দিবে। এই সব হুকুকুল-এবাদের ব্যাপরে যেহেতু, বড়ই কঠিন বিষয় এ সম্বন্ধে কিছুতেই অবহেলা করিবে না।

আর তোমার যে সব হক পাওনা অন্যের কাছে রহিয়া গিয়াছে, তাহা যদি উসূল হওয়ার আশা থাকে, তবে নরমির সহিত উসুল করিয়া লইবে। আর যদি উসূল হওয়ার আশা না থাকে বা হকই এমন হয় যে, তাহা উসুল হওয়ার উপযুক্ত নহে যেমন গীবত, গালি ইত্যাদি হবে যদিও ঐসব হকের পরিবর্তে ক্বিয়ামতের দিন নেকী পাওয়ার আশা আছে, তবুও মাফ করিয়া দেওয়াতে আরও অধিক নেকি পাওয়ার আশা তাই একেবারেই মাফ করিয়া দেওয়াই ‍উত্তম। বিশেষত যদি কেহ মাফ চায় বা খোশামোদ করে তবে ত অবশ্যই মাফ করিয়া দেওয়া উচিত।

ভাল লাগলে কমেন্টে জানাতে ভুলবে না…

ভুলে ভরা জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,যদি আমার লেখার মাঝে কোন ভুলত্রুটি থাকে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ সবাই ভাল থাকবেন।

 

মোঃ আবুল বাশার

আমি একজন ছাত্র,আমি লেখাপড়ার মাঝে মাঝে একটা ছোট্ট পত্রিকা অফিসে কম্পিউটার অপরেটর হিসাবে কাজ করে,নিজের হাত খরচ চালানোর চেষ্টা করি, আমি চাই ডিজিটাল বাংলাদেশ হলে এবং তাতে সেই সময়ের সাথে যেন আমিও কিছু শিখতে পারি। আপনারা সকলে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পরার চেষ্টা করুন এবং অন্যকেও ৫ওয়াক্ত নামাজ পরার পরামর্শ দিন। আমার পোষ্ট গুলো গুরে দেখার জন্য ধন্যবাদ, ভাল লাগেলে কমেন্ট করুন। মানুষ মাত্রই ভুল হতে পারে,ভুল ত্রুটি,হাসি,কান্না,দু:খ,সুখ,এসব নিয়েই মানুষের জীবন। ভুলে ভড়া জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,ভুল ত্রুটি ক্ষমার দৃর্ষ্টিতে দেখবেন। আবার আসবেন।

2 thoughts on “একটি জরুরী বিষয় (হক আদায়)

Leave a Reply