নবীদের কাহিনী (বই ) – দুই খন্ড

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

আসসালামু আলাইকুম, সবাইকে স্বাগতম। কেমন আছেন আপনারা? আশা করি মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশি ও আশে-পাশের সবাইকে নিয়ে খুবই ভাল আছেন। ভাল থাকুন ও ভাল রাখুন আপনার পাশের মানুষটিকে। তবে আমি বেশি সুবিধেয় নেই, শরীরটা চরম খারাপ। আর ভাল লাগে না। যাক অনেক দিন এই রকম এটা পোষ্ট লিখতে পেরে অনেক অনেক ভাল লাগছে 😀 আশা আপনাদের সকলেরই ভাল লাগবে।


পোষ্টটি যদি ভাল আপনারা অবশ্যই ফেইসবুক, টুইটার, গুগল+ সহ সকল স্যোশাল নেটওয়্যাকিং সাইটে শেয়ার করবেন।


আশরাফুল মাখলুকাত মানব জাতির কল্যাণে প্রেরিত মানব জাতির বিধান সমূহ প্রচার ও প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আল্লাহ স্বীয় অনুগ্রহে আদম (আঃ) থেকে মুহাম্মাদ (সাঃ) যুগে যুগে যে অসংখ্য নবী রাসূল প্রেরন করেছেন তাদের মধ্য থেকে মাত্র ২৫ জন নবীর নাম আল্লাহ পবিত্র কুরআনে গুরুত্ত্বের সাথে উল্ল্যেখ করেছেন এবং সত্যের পথে তাঁদের দৃঢ়চিত্ত্ব সংগ্রামের হৃদয়গ্রাহী সংগ্রামের বর্ণনা করে মানবতার সামনে সত্য ন্যায় ও সুন্দরের অনুপম মানদণ্ড উপস্থাপন করেছেন। এসব কাহিনী কেবল চিত্ত বিনোদনের খোরাক নয়, বরং এক অবিরাম বিচ্ছুরিত আলোকধারা, যার প্রতিটি কণায় বিকশিত হয় মানবতার সর্বোচ্চ নমুনা। নবী ও রাসূলগণের জীবনালেখ্য জানা ও তা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা আমাদের মুসলমানদের অপরিহার্য কর্তব্য। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি বাংলাদেশে এর বস্তুনিষ্ঠ ইতিহাস খুবই দুর্লভ। তাই বিষয়টির গুরুত্ত্ব উপলব্ধি করে মাননীয় লেখক প্রফেসর ডঃ মুহাম্মদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব এই মুল্যবান ইতিহাসটি লিখেন।

নবীদের কাহিনী (বই ) – দুই খন্ড | অনির্বাচিত টিউনার

এই বইটির বিশেষত্ব হচ্ছে-


ঘটনা মূলক বর্ণনা পদ্ধতি মূল বিষয় বস্তু আত্মস্থ করতে শ্রোতা ও পাঠকগণকে খুব দ্রুত আকৃষ্ট করে। মানুষের বিচার-বুদ্ধি, প্রকৃতি ও স্বভাবের উপর এর সফল প্রভাব পরে। ফলে সহজেই ঘটনা হতে শিক্ষা গ্রহণ করা যায় এবং তার উপর আমল করা যায়। এ জন্য রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) অনেক সময় সাহাবায়ে কেরামদের জন্য ঘটনা মূলক উদাহরণ পেশ করতেন।

বইটিতে কুরআনের বিভিন্ন স্থানে বর্ণিত ঘটনা ও বক্তব্য সমূহ একত্রিত করে কাহিনীরূপ প্রদান করা হয়েছে। সেই সাথে বিশ্বস্ত তাফসীর,হাদীস ও ইতিহাস গ্রন্থ’ সমূহ থেকেও উদ্ধৃত করা হয়েছে। নবীদের কাহিনীর নামে প্রচলিত কেচ্ছা-কাহিনী ও ইসরাইলী উপকথা সমূহ হ’তে বিরত থেকে সহীহ বর্ণণাসমূহ দ্বারা বইটি সমৃদ্ধ হয়েছে।

এর সবচেয়ে মূল্যবান সংযোজন হল আম্বিয়া কেরামের জীবনী থেকে বর্তমান বিশ্বের প্রেক্ষাপটে শিক্ষনীয় বিষয় সমূহ তুলে ধরা হয়েছে।

কুরআনে ২৫ জন নবীর নাম বর্ণণা করা হয়েছেঃ


আদম, নূহ, ইদরীস, হূদ, ছালেহ, ইবরাহীম, লূত, ইসমাঈল, ইসহাক, ইয়াকূব, ইউসুফ, আইয়ূব, শু‘আয়েব, মূসা, হারূণ, ইউনুস, দাঊদ, সুলায়মান, ইলিয়াস, আল-ইয়াসা‘, যুল-কিফ্ল, যাকারিয়া, ইয়াহ্ইয়া, ঈসা (আ) ও হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। বইটিতে দুটি খণ্ডে সম্মানিত এসকল আম্বিয়া আলাইহিমুস সালামের কাহিনী আলোচনা করা হয়েছে।

পরিশেষে বলা যায়, “নবী কাহিনী” একটি নির্ভরযোগ্য তথ্যবহুল বই। আশা করা যায়, এর মাধ্যমে পাঠক সমাজ মানবজাতির প্রাচিন ইতিহাসের পাদপীঠে নিজেদের নতুনভাবে মূল্যায়ন করতে সক্ষম হবেন এবং নবীদের উন্নত জীবনকে উত্তম আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করার প্রেরণা লাভ করবেন।

আল্লাহ তাআলা বলেন : ‘তাদের কাহিনীতে বুদ্ধিমানদের জন্য রয়েছে শিক্ষণীয় বিষয়, এটা কোন মনগড়া কথা নয়, কিন্তু যারা বিশ্বাস স্থাপন করে তাদের জন্যে পূর্বেকার কালামের সমর্থন।’ [সূরা ইউসুফ : ১১১]।

“আল্লাহ যার কল্যাণ চান, তাকে দ্বীনের জ্ঞান দান করেন”। (বুখারী)

মানব জাতির শেষ্ঠ মানুষ নবীদের জীবনী পাঠ করি, আল্লাহ আমাদের এই সকল কাহিনী ও ঘটনা থেকে উপকৃত হওয়ার তাওফিক দান করুন, আমিন।

এবার বইটি ডাউনলোড করে নিন তাহলে…..

ডাউনলোড লিংক


পোষ্টটি যদি ভাল আপনারা অবশ্যই ফেইসবুক, টুইটার, গুগল+ সহ সকল স্যোশাল নেটওয়্যাকিং সাইটে শেয়ার করবেন।

আমাদের রয়েছে ইসলামী পেজ একটি ও টেকটি পেজ রয়েছে ফেইসবুকে। সবাই লাইক দিবেন আশা করি একটি করে 😀 😀

অনির্বাচিত টিউনার

®╔═════════════════════ஜ۩۞۩ஜ══════════════════════╗® ✪░░▒▓███►✂✂((((☠☠➸Unsele©ted✖TweeteЯ™➸☠☠))))✂✂◄███▓▒░░✪ ®╚═════════════════════ஜ۩۞۩ஜ══════════════════════╝®

2 thoughts on “নবীদের কাহিনী (বই ) – দুই খন্ড

  • December 8, 2012 at 5:46 pm
    Permalink

    দিদি আপনার পোস্ট লেখার স্টাইল তো বরাবরের মত হিট হবেই আর islamicambit এ আপনাকে স্বাগতম ।
    অনেক কিছু ই করার ইচ্ছে আছে এই সাইটির কিন্তু করতে পারছি না কিছু সমস্যার কারণে ।আমাদের পাশে থাকলে হয়তো আমরা একটু সাহস পাবো

    • December 8, 2012 at 6:11 pm
      Permalink

      যখা সম্ভব চেষ্টা করব আপনাদের সাথে থাকার জন্য। আর সাইটের ক্যাটাগরি আরও কমান। যাই হোক থিমটা সুন্দর হয়েছে। সাইটটা আরও সুন্দর করে সাজাতে পারেন।

Leave a Reply