লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ এর মর্মকথা (পর্ব- ১)

আসসালামু আলাইকুম,

আজ আসলাম লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ এর মর্মকথা নিয়ে।ধারাবাহিকভাবে চলবে।

সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য . আমরা তাঁরই নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করি এবং তারই নিকট তওবা করি . আমাদেরকে সমস্ত বিপর্যয় ও কুকীর্তি হতে রক্ষা করার জন্য তারই সাহায্য প্রার্থনা করি . আল্লাহ যাকে হিদায়েত দান করেন তার কোন প্রথ্ভ্রষ্টকারী নেই . আর যাকে প্রথ্ভ্রষ্ট করেন তাঁর কোন পথ প্রদর্শনকারী নেই .

আল্লাহ বলেন :

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا اذْكُرُوا اللَّهَ ذِكْرًا كَثِيرًا                                                                                                         41

 

মুমিনগণ তোমরা আল্লাহকে অধিক পরিমাণে স্মরণ কর।

 

وَسَبِّحُوهُ بُكْرَةً وَأَصِيلًا                                                                                                                 42

 

এবং সকাল বিকাল আল্লাহর পবিত্রতা বর্ণনা কর। আহযাব ৪১-৪২ /

 

এখানে বলে রাখা প্রয়োজন যে ,সব চেয়ে উত্তম যিকর হল (لا إله إلا الله و حده لا شر يك له) অর্থাৎ আল্লাহ ছাড়া আর কোন সত্য মাবুদ নেই , তিনি একক তাঁর কোন শরীক নেই .

 

রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়াসাল্লাম বলেনঃ সবচেয়ে উত্তম দো’যা আরাফাত দিবসের দো’যা এবং সবচেয়ে উত্তম কথা যা আমি এবং আমার পূর্ববর্তী নবীগন বলেছেন ,তা হলো                                                                                  (لا إله إلا الله و حده لا شر يك له ‘ له الملك و له الحمد و هو على كل شيء قد ير

 

উচ্চারণ : লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা-শারীকালাহু , লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদ ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর .

 

অর্থাৎ , আল্লাহ ছাড়া আর কোন সত্য মাবুদ নেই , তিনি একক তাঁর কোন শরীক নেই . রাজত্ব একমাত্র তাঁরই জন্য এবং প্রশংসা একমাত্র তাঁরই জন্য তিনি সকল কিছুর উপর ক্ষমতাবান ” .

 

* আল্লাহর যিকিরসমূহের মধ্যে- لا إله إلا الله এই মহামূল্যবান বানীর রয়েছে বিশেষ মর্যাদা এবং এর সাথে সম্পর্ক রয়েছে বিভিন্ন হুকুম আহকামের . আর এই কালিমার রয়েছে এক বিশেষ অর্থ ও উদ্দেশ্য এবং কয়েকটি শর্ত , ফলে এ কালিমাকে গতানুগতিক মুখে উচ্চারণ করাই ঈমানের জন্য যথেষ্ট নয় . এ জন্যই আমি আমার লেখায় এই বিষয়টিকে তুলে ধরবো . আল্লাহর নিকট প্রার্থনা করি তিনি যেন আমাকে ঐ সমস্ত লোকদের অর্ন্তভূক্ত করেন যারা এই কালিমাকে সঠিক অর্থে বুঝেতে পেরেছেন .

 

প্রিয় পাঠক , এ কালিমা ব্যাখ্যা দানকালে নিন্মবর্তী বিষয়গুলোর উপর আলোকপাত করব :

 

* মানুষের জীবনে এ কালিমার মর্যাদা

 

* এর ফযিলত

 

* এর ব্যাকারণি ব্যাখ্যা

 

* এর স্তম্ভ বা রোকন সমূহ

 

* এর শর্তাবলী

 

* এর অর্থ এবং দাবী

 

* কখন মানুষ এই কালিমা পাঠে উপকৃত হবে আর কখন হবেনা

 

* আমাদের সার্বিক জীবনে আর প্রভাব কি ?

 

চলবে……… .

ওমর ফারুক হেলাল

তেমন কেউ না,একজন ছাত্র।মাদ্রাসায় পড়ালেখা করছি ভালো আলেম হওয়ার আশায়।পাশাপাশি দ্বীনে কিছু কাজের সাথে জড়িত আছে পরকালীন মুক্তির নেশায়। আল্লাহ আমাকে কবুল করুক। আমীন

2 thoughts on “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ এর মর্মকথা (পর্ব- ১)

Leave a Reply